মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৫ জুলাই ২০২০

এপিএ প্রণয়ন কর্মশালা

এপিএ প্রণয়ন কর্মশালা সংক্রান্ত তথ্য

১।       বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিনিধি হিসাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মাননীয় মন্ত্রীর প্রতিনিধি হিসাবে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগের সচিবের মধ্যে স্বাক্ষরিত একটি সমঝোতা দলিল। সরকারি কর্মকাণ্ডে স্বচ্ছতা ও দায়বদ্ধতা বৃদ্ধি, সম্পদের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিতকরণ এবং প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা উন্নয়নের লক্ষ্যে সরকারি কর্মসম্পাদন ব্যবস্থাপনা পদ্ধতির আওতায় বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি প্রবর্তন করা হয়েছে। এই চুক্তিতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগের কৌশলগত উদ্দেশ্যসমূহ, এ সকল কৌশলগত উদ্দেশ্য অর্জনের জন্য গৃহীত কার্যক্রমসমূহ এবং এ সকল কার্যক্রমের ফলাফল পরিমাপের জন্য কর্মসম্পাদন সূচক ও লক্ষ্যমাত্রাসমূহ বিধৃত রয়েছে। সংশ্লিষ্ট অর্থবছর সমাপ্ত হওয়ার পর ঐ বছরের চুক্তিতে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা সমূহের বিপরীতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগের প্রকৃত অর্জন মূল্যায়ন করা হবে।

২।       গত ২০১৫-২০১৬ অর্থবছর হতে প্রত্যেকটি মন্ত্রণালয়/বিভাগের সিনিয়র সচিব/সচিব মহোদয়গণের সাথে এর আওতাধীন দপ্তর/সংস্থার প্রধানগণের মধ্যে এপিএ স্বাক্ষর হয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় এপিএ ক্যালেন্ডার অনুয়ায়ী গত ২৩ জুন ২০১৯ তারিখে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব মহোদয় ও বিএসটিআই’র মহাপরিচালক মহোদয়ের মধ্যে ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের এপিএ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এছাড়া গত ২০ জুন ২০১৯ তারিখে বিএসটিআই’র মহাপরিচালক মহোদয় এবং বিএসটিআই’র ০৭টি বিভাগীয় অফিসের (ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট ও রংপুর) বিভাগীয় প্রধানদের মধ্যে এপিএ চু্ক্তি স্বাক্ষরিত হয়। উল্লেখ্য বিএসটিআই গত ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের এপিএতে উল্লেখিত লক্ষ্যমাত্রাসমূহ সন্তোষজনকভাবে বাস্তবায়নের ফলশ্রতিতে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ১২টি দপ্তর/সংস্থার মধ্যে ৩য় স্থান অর্জন করে।

৩।      প্রধানকার্যালয় ও বিভাগীয় অফিসের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের এপিএ এবং অন্যান্য বিষয়ে দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে এপিএ-এর উপর গত ২৮.০৯.২০১৯ ও ০৬.০২.২০২০ তারিখে দুটি প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয়। উক্ত কর্মশালায় মোট ৫১ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণ করেন। এধারা চলমান রাখার লক্ষ্য থাকা সত্বেও সম্প্রতি মহামারী করোনার বিরূপ প্রভাবের কারণে তা ব্যহ্যত হয়। বিএসটিআই ইতোমধ্যে এপিএ বিষয়ক রাজশাহীতে ২ (দুই) দিনব্যাপী ১২ (বারো) ঘণ্টা প্রশিক্ষণ প্রদান করেছে। ২৫ জন কর্মকর্তা/কর্মচারী উক্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন। বিভাগীয় অফিস রংপুরেও এপিএ এর উপর ০৭ (সাত) ঘন্টা প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয় এবং ১১ জন কর্মকর্তা এ প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন। এছাড়াও গত ২২.০৯.২০১৯ তারিখে বিভাগীয় অফিস, বরিশালে এপিএ এর উপর ১০ (দশ) ঘণ্টা প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয় এবং ১২ জন কর্মকর্তা উক্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন।

৪।       শিল্প মন্ত্রণালয়ের সাথে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের স্বাক্ষরিত এপিএতে বিএসটিআই’র যে লক্ষ্যমাত্রা ছিল তার বিপরীতে যা অর্জিত হয়েছে, তা নিম্নে প্রদত্ত হলোঃ

ক্রমিক নং

বিষয়

একক

লক্ষ্যমাত্রা

অর্জিত

০১

পণ্যের আন্তর্জাতিক মানের সাথে জাতীয় মানের সামঞ্জস্য বিধান।

সংখ্যা

১৮০

১৮০

০২

পণ্যের সার্র্টিফিকেশন মার্কস প্রদান

সংখ্যা

২১৫০

২৬৮৭

০৩

পণ্যের সার্র্টিফিকেশন মার্কস নবায়ন

সংখ্যা

৩০৫০

৩১৮৬

 

অন্যান্য লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে অর্জন মোটামুটি সন্তোষজনক। বিএসটিআই’র ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের স্বাক্ষরিত এপিএতে প্রদত্ত লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে বাস্তবায়নের অগ্রগতি পর্যালোচনা করা হয়েছে; যা সন্তোষজনক।

৫।       ২০২০-২০২১  অর্থবছরের স্বাক্ষরিতব্য এপিএ’র চূড়ান্ত খসড়া ইতোমধ্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের বিবেচনার জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। আশা করা যায়, সহসা বিএসটিআই ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের মধ্যে ২০২০-২০২১ অর্থবছরের এপিএ স্বাক্ষরিত হবে। বিএসটিআই’র মহাপরিচালক মহোদয়ের সাথে ৮টি বিভাগীয় অফিসের প্রধানদের সাথে ২০২০-২০২১ অর্থবছরের এপিএ স্বাক্ষরের জন্য প্রস্তুত রয়েছে।


Share with :

Facebook Facebook